রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৬:৫৫ পূর্বাহ্ন
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার:
রাজনৈতিকভাবে সরকারকে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়ে মৌলবাদকে উস্কে দেয়: তথ্যমন্ত্রী মানিকগঞ্জ পৌর নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেলেন রমজান আলী নওগাঁয় সপ্তদশ মানবাধিকার নাট্য উৎসব অনুষ্ঠিত রবিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেল সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী সম্মাননা প্রদানের মাধ্যমে শেষ হলো কবি সম্মেলন করোনায় আজ মৃতের সংখ্যা বেশি ৩৬ জন ।। ঢাকা বিভাগেই ৩০ জন বগুড়া বার সমিতির নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী প্যানেলের জয় বগুড়ায় দুই দিনব্যাপী কবি সম্মেলন ও বইমেলার উদ্বোধন রাঙ্গামাটি রাজবন বিহারে কঠিন চীবর দানোৎসব উদযাপিত মৃত দেখিয়ে ভোটার তালিকা থেকে কাউন্সিলর প্রার্থীর নাম কর্তন

৩৯ বছরেও বিচার হয়নি ছাত্রলীগ নেতা কল্যাণ বিহারী দাস হত্যার

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৮ নভেম্বর, ২০২০
  • ২১২ দেখা হয়েছে

বাংলা হেডলাইনস টাঙ্গাইল : আগামীকাল ৯ নভেম্বর টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগ নেতা কল্যাণ বিহারী দাসের হত্যার ৩৯ বছর পূর্ণ হবে।

এতদিনেও বিচার হয়নি আলোচিত এ হত্যাকান্ডের। হত্যাকান্ডের পর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা কল্যাণ বিহারী দাসের বাড়ি গিয়ে তার মা-বাবাসহ পরিবারের সদস্যদের সান্তনা দেন এবং তিনি ক্ষমতায় গেলে এর বিচার করা হবে বলে আশ্বাস দেন।

বর্তমানে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়। তারপরও এ হত্যা মামলার বিচার পাচ্ছে না কল্যাণের পরিবার।

কল্যাণ বিহারী দাসের বড় ভাই অধ্যাপক বিমান বিহারী দাস জানান, ১৯৮১ সালের ৯ নভেম্বর রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রাক্কালে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ড. কামাল হোসেনের পক্ষে টাঙ্গাইলের যুগনী হাটে নির্বাচনী মিছিল বের করা হয়।

সেই মিছিলে নেতৃত্ব দেয়ার সময় বিএনপি নামধারী একদল দুর্বৃত্ত ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপয়ে হত্যা করে টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের তৎকালীন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কল্যাণ বিহারী দাসকে।

বিএনপি সরকারের তৎকালীন ধর্মমন্ত্রী আব্দুর রহমানের ভাতিজা ও জামাতা লাল মাহমুদকে প্রধান আসামী করে  ওইদিনই হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। কিন্তু ওই সরকারের চাপে মামলার অগ্রগতি হয়নি।

পরবর্তীতে এরশাদ সরকারের আমলে আসামীরা উচ্চ পর্যায়ে তদবির করে। তখন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে এ হত্যা মামলার বিচার কাজ বন্ধ করা হয়।

অধ্যাপক বিমান বিহারী দাস আরো জানান, কল্যাণ হত্যার পর নভেম্বর মাসের শেষ দিকে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা টাঙ্গাইল শহরের আদালত রোডে কল্যাণের বাড়ি গিয়ে তার মা-বাবাসহ পরিবারের সদস্যদের সমবেদনাজানান এবং আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় গেলে এ হত্যার বিচার করা হবে বলে তিনি আশ্বাস দেন।

আওয়ামী লীগ চার দফায় ক্ষমতায় এলেও কল্যাণ বিহারী দাস হত্যার বিচারের কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

কল্যাণ বিহারী দাস হত্যার বিচারের আশায় এখনো বুক বেঁধে অপেক্ষা করছে তার পরিবারের সদস্যরা । তারা আশা করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিলে এ হত্যাকান্ডের বিচার হবে ।

ফেসবুকের মাধ্যমে আমাদের মতামত জানাতে পারেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

এই বিভাগের আরো সংবাদ
Banglaheadlines.com is one of the leading Bangla news portals, Get the latest news, breaking news, daily news, online news in Bangladesh & worldwide.
Designed & Developed By Banglaheadlines.com